ডাটা স্টোর করার জন্য ১০ টি ফ্রী ক্লাউড স্টোরেজ সার্ভিস

Hello Guy’s! অনেক দিন পর আবার ও আপনাদের মাঝে ফিরে এসেছি।আসলে কাজের ব্যস্ততায় লেখালেখির সুযোগ হচ্ছে না। আজ আপনাদের সাথে আলোচনা করব ফ্রী ক্লাউড স্টোরেজ সার্ভিস সম্পর্কে।তার আগে আপনাদের সাথে কিছু বিষয় আলোচনা করে নেই। অনেকের পিসিতে বা ফনে বিভিন্ন ডাটা বা গুরুত্বপূর্ন ফাইল সেভ করা থাকে।কোন কারনে পিসি বা ফোন হারিয়ে গেলে পরতে হয় মহা বিপত্তিতে। অথবা পিসি/ফোন বাসায় রেখে কোথাও গেলে প্রয়োজন পড়তে পারে আপনার  করা প্রজেক্ট বা ফাইলের এজন্য আপনাকে আবার বাসায় যেতে হবে পিসি/ফোন আনার জন্য। এই ধরনের সমস্যা থেকে সহজেই মুক্তি পেতে আপনি গ্রহন করতে পারেন ক্লাউড সেবা।

cloud storege

ক্লাউড স্টোরেজ সার্ভিস কি ?

ক্লাউড স্টোরেজ হচ্ছে ইন্টারনেট ভিত্তিক ডাটা স্টোর সার্ভিস। যেখানে আপনার ডকুমেন্ট আপলোড করে রেখে পৃথীবির যেকোন প্রন্ত থেকে ডকুমেন্ট এক্সেস করার সুযোগ বা সুবিধা ভোগ করতে পারবেন।এক্ষেত্রে আপনি চাইলে ফ্রী আথবা পেইড দুইটি সার্ভিস ই ব্যবহার করতে পারবেন। এজন্য অবশ্য আপনাকে সার্ভিসের সদস্য হতে হবে সহজ কথা একাউন্ট খুলতে হবে। তারপর আপনার একাউন্টে ফাইল আপলোড করে দেখে দিতে পারবেন।

১০ টি ফ্রী ক্লাউড স্টোরেজ সার্ভিস

আজ আপনাদের কাছে ১০ ফ্রী ক্লাউড সার্ভিস সম্পর্কে তুলে ধরব। যেখানে কোন পরিমান পেমেন্ট ছাড়াই শুধুমাত্র একাউন্ট খুলে ফাইল আপলোড করা যাবে।

1. Google Drive  অনেকেই গুগুল ড্রাইবের নাম শুনেছেন বা ব্যবহার করেছেন। গুগুল ড্রাইব হচ্ছে বর্তমান সময়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় ক্লাউড সার্ভিস। যা শুধুমাত্র গুগুল একাউন্ট (জিমেইল) থাকলেই ব্যবহার করতে পারবেন।গুগুল ড্রাইবে ১৫ GB পর্যন্ত ফ্রি ব্যবহার করা যায়।

2. Mediafire  ক্লাউড সার্ভিস সমূহের মধ্য থেকে বর্তমানে সবচেয়ে বেশী জনপ্রিয় Mediafire.  শুধুমাত্র ফাইল আপলোড এবং ডাউনলোডের ভাল ফিচার থাকায় এই সার্ভিসটি এত জনপ্রিয়। এখানে ১৫ জিবি পর্যন্ত ফ্রি ডাটা স্টোর করতে পারবেন।

3. Apple iCloud I Phone ব্যবহারকারীদের অনেকেরই iCloud সম্পর্কে ধরনা আছে। এই সার্ভিস টি শুধুমাত্র আইফোন ব্যবহারকারীরাই পেয়ে থাকেন। Apple iCloud ফ্রি ৫ জিবি পর্যন্ত ব্যবহার করা যায়।

4. Box থেকে ১০ জিবি পর্যন্ত ফ্রি ক্লাউড স্টোরেজ ব্যবহার করা যায়। এবং প্রত্যাকটা ফাইল আপলোডের লিমিট ২৫০ মেগাবাইট পর্যন্ত। ৫ জিবি স্টোর শেষ হলে আপনাকে প্রিমিয়াম একাউন্ট খুলতে হবে। অর্থাৎ টাকা দিয়ে স্টোরেজ বাড়াতে হবে।

5. Copy  বর্তমানে আরেকটি  ক্লাউড সার্ভিস যা খুব জনপ্রিয়। Copy তে ১৫ জিবি পর্যন্ত ফ্রি ডাটা স্টোর করার সুবিধা ভোগ করতে পারবেন।

6. DropBox Drag and drop  এর ফিচারের জন্য  DropBox এখন খুব জনপ্রিয়তা পেয়েছে।  DropBox এ ৫ জিবি পর্যন্ত ফ্রি স্টোর ব্যবহার করা যায়।

7. HiDrive আনলিমেটেড ডাটা স্টোর প্লান নিয়ে কাজ করছে HiDrive । এখানে শুধুমাত্র রেজিষ্টার্ড মেম্বার হলেই আনলিমিটেড স্টোরেজ ব্যবহার করা যাবে।

8. OneDrive এটি একটি মাইক্রোসফট এর প্রডাক্ট। Microsoft OneDrive এ ১৫ জিবি পর্যন্ত ক্লাউড সেবা গ্রহন করা যাবে।

9. pCloud  ২ জিবি পর্যন্ত স্টোরেজ ব্যবহার করা যাবে।

10. BD Upolod একটি বাংলাদেশী ক্লাউড সার্ভিস। যেখানে আপলোড কৃত ফাইল ডাউনলোডের উপর মেম্বারদের পেমেন্ট করা হয়।

এখান শুধুমাত্র ১০ টি সার্ভিস নিয়ে আলোচনা করেছি মাত্র। এইরকম ক্লাউড সার্ভিস হাজার হাজার রয়েছে। সব ক্লাউড সার্ভিস সমূহ ট্রাষ্টেড হয় না। এখানে যেই ১০ টা সার্ভিস সম্পর্কে আলোচনা করেছি সবগুলোই ট্রাষ্টেট সার্ভিস।

যদি আমার এই লেখাটি ভাল লেগে থাকে তাহলে দয়া করে আপনার ফেসবুক টাইমলাইনে পোষ্টটি শেয়ার করুন। আপনাদের রেস্পন্স পেলেই ভাল কিছু লিখার অনুপ্রেরণা পাই। ধন্যবাদ সবাইকে।

 

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY